গাইবান্ধায় দীর্ঘদিনের জুয়ার আসরে ডিবি পুলিশের হানা, ৫ জুয়ারি আটক

Oli Oli

Ahad

প্রকাশিত: ৬:২১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০২০

মাসুম লুমেনঃ

সুন্দরগঞ্জ থানাধীন ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নের হাতিয়া গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে চান মিয়া (৪০) দীর্ঘদিন ধরে গোপনে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে তার নিজ বাড়িতে জুয়া খেলার আসর বসাতো। এতে গ্রামের হতদরিদ্র লোকজন, রিকশাচালক, ভ্যানচালক ও দিনমজুর শ্রেণির খেটে খাওয়া মানুষ জুয়া খেলার নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ে। তাদের সারাদিনের উপার্জিত অর্থ, সর্বস্ব হারিয়ে নিঃস্ব হতে থাকে। ফলে এলাকায় পারিবারিক অশান্তি, সামাজিক অনাচার, চুরি ও ছিনতাই বেড়ে গেলে স্থানীয় সাধারণ জনগণ পুলিশ সুপার মহোদয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। পুলিশ সুপার এর নির্দেশে ওই এলাকায় শুরু হয় গোয়েন্দা নজরদারি।

এরই প্রেক্ষিতে শুক্রবার প্রথম প্রহরে ( ১২ টা ১৫ মিনিট) ডিবি পুলিশের চৌকস পুলিশ অফিসার এস আই গাফফার হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সসহ জুয়ারু চানমিয়ার বাড়ি তল্লাশি করে জুয়া খেলা অবস্থায় জুয়া খেলার সরঞ্জামাদি সহ ৫ জুয়ারিকে আটক করে ডিবি পুলিশ।

আটককৃত জুয়ারিরা হলেন- ১। চান মিয়া (৪০) পিতা, মৃত সিরাজুল ইসলাম, ২। জাহিদুল ইসলাম (৫২) পিতা, মৃত নাসির উদ্দিন, ৩। মিটন মিয়া (৪২) পিতা, মৃত রমিজ উল্লাহ সরকার, ৪। জিল্লুর রহমান (৫০) পিতা, মৃত বিরাজ উদ্দিন। তাদের সবার বাড়ি সুন্দরগঞ্জ উপজেলার হাতিয়া পশ্চিমপাড়া গ্রাম। অপর আসামি দশলিয়া গ্রামের আব্দুল হান্নানের ছেলে (৫) বাবলু মিয়া (৩৫)।

এদিকে জুয়ারিদের আটক হওয়ার খবরটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে তারা সন্তোষ প্রকাশ করে গাইবান্ধা পুলিশ সুপার মহোদয়কে ধন্যবাদ জানান।
। এছাড়া গ্রামের অসহায় মানুষ সামাজিক অনাচার এবং নৈতিক অবক্ষয় হওয়া থেকে মুক্তি পাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন এলাকাবাসী।

এ ঘটনায় ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, পুলিশ সুপার মহোদয়ের দিক নির্দেশনায় এবং গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দীর্ঘদিন ধরে চলা জুয়ার আসর ধ্বংস করতে চান মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৫ জুয়ারিকে আটক করা হয়েছে। আটক জুয়ারিদের বিরুদ্ধে সুন্দরগঞ্জ থানায় জুয়া আইনে মামলা দায়ের শেষে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।