কালীগঞ্জের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন

Tista Tista

Express

প্রকাশিত: ৫:২৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৬, ২০২০

মারুফ হাসান, কালিগঞ্জ প্রতিনিধি:

২৬শে অক্টোবর (রোজ সোমবার) প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে এ বছরের দুর্গা পূজো শেষ হয়।এ বছরে কালীগঞ্জ উপজেলায় করোনা পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে সরকারের দেয়া বিধিনিষেধ ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রায় ৫৫ টি দুর্গাপূজার উদযাপন করা হয়। সনাতন ধর্ম অবলম্বী সম্প্রদায়ের দুর্গাপূজা উদযাপন সার্বিক সহযোগিতা করেন জনাব মেহের আফরোজ চুমকি এমপি মাননীয় সংসদ সদস্য এবং প্রশাসনের সার্বিক নিরাপত্তায় শান্তিপূর্ণভাবে দূর্গাপূজা পালন করেন।প্রতিটি পূজা মন্ডপ পর্যালোচনা করে দেখা যায়।প্রতি পূজা মণ্ডপে সরকার ৫০০ কেজি করে চাল এবং মেহের আফরোজ চুমকি আপার পক্ষ থেকে ২০,০০০ টাকা আর্থিক সহযোগিতা করেন। এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগের সকল নেতৃবৃন্দের সার্বিক সহযোগিতায় শান্তিপূর্ণভাবে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা দূর্গাপূজা উদযাপন করেন। এবং পূজামণ্ডপগুলোতে দেখা যায়

ভাওয়াল জামালপুর কালীমন্দির শারদীয় দূগা পূজা সম্মানিত সভাপতি ববেস সাহা পূজার আয়োজন করেন ভবেশ সাহার অনুপস্থিতিতে সাধারণ সম্পাদক মাখন সাহা পূজামণ্ডপের বাজেটের তথ্য পেশ করেন।তিনি বলেন এ দুর্গা পূজাতে দুই লক্ষ টাকা বাজেট ধরা হয়েছে এর মধ্যে সরকার থেকে পেয়েছে ৫০০ কেজি চাল জনাব মেহের আফরোজ চুমকি এমপি বিশ হাজার টাকা,জামালপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান ফারুক মাস্টার পাঁচ হাজার টাকা,জামালপুর সাত নং ওয়ার্ডের মেম্বার নাজমুল হোসেন দশ হাজার টাকা,পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হোসেন দশ হাজার টাকা দিয়ে সহযোগিতা করেন।

চুপাইর সর্বজনীন শ্রী শ্রী শারদীয়া দুর্গাপূজা মণ্ডপে পূজা উদযাপন করেন।চুপাইর সর্বজনীন শ্রী শ্রী শারদীয় নিরবধি সভাপতি ছিলেন দিলীপ কুমার দাস তার অনুপস্থিতিতে স্বপন কুমার দাস সাধারণ সম্পাদক তিনি পূজার বাজেটের তথ্য পেশ করেন।তিনি বলেন এ পুজোতে এক লক্ষ টাকা বাজেট ধরা হয়েছে সরকার থেকে পেয়েছে ৫০০ কেজি চাল,জনাব মেহের আফরোজ চুমকি এমপি আপার পক্ষ থেকে পেয়েছে বিশ হাজার টাকা,জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব মাহবুবুর রহমান সরকারের পক্ষ থেকে ৫,০০০ টাকা সহযোগিতা পেয়েছেন।

বড় ভোলা ঐতিহ্যবাহী শ্রী শ্রী রক্ষা কালী বাড়িতে সর্বজনীনতা শারদীয় পূজা উদযাপন করেন। পূজা মণ্ডপের সভাপতি ধীরেন্দ্র চন্দ্র সরকার তিনি পূজার বাজেটের তথ্য পেশ করেন।তিনি বলেন আনুমানিক দু লক্ষ টাকার পূজা আয়োজন করা হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে পেয়েছেন ৫০০ কেজি চাল,জনাব মেহের আফরোজ চুমকি আপার পক্ষ থেকে পেয়েছেন ২০হাজার টাকা,জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব মাহবুবুর রহমান ফারুক মাস্টার এর পক্ষ থেকে পেয়েছেন ৫০০০ টাকা আর্থিক সহযোগিতা।

কাপাইস পশ্চিমপাড়া শ্রী শ্রী জয় দুর্গা মন্দিরে শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন করা হয়। পূজা মণ্ডপের সভাপতি নয়ন চন্দ্র দাস পূজার বাজেটের তথ্য পেশ করেন।তিনি বলেন এবছর পূজোতে এক লক্ষ আশি হাজার টাকা বাজেট ধরা হয়েছে। সরকারের কাছ থেকে পেয়েছেন ৫০০ কেজি চাল,জনাব মেহের আফরোজ চুমকি আপার পক্ষ থেকে পেয়েছেন ২০হাজার টাকা,জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব মাহবুবুর রহমান ফারুক মাস্টারের কাছ থেকে পেয়েছেন পাঁচ হাজার টাকা।

শ্রী শ্রী রাধা চরম জিউর আখড়া ও শ্রী শ্রী লোকনাথ সেবাশ্রম বাসাইর বনিকপাড়াতে শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন করেন। শারদীয় দুর্গাপূজার সভাপতি রাম গোপাল বণিক তিনি বলেন এ বছরে দুর্গা পূজাতে আনুমানিক আড়াই লক্ষ টাকা বাজেট ধরা হয়েছে। সরকারের কাছ থেকে পেয়েছেন ৫০০ কেজি চাল জনাব মেহের আফরোজ চুমকি আপার পক্ষ থেকে পেয়েছেন ২০হাজার হিন্দুধর্ম কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে পেয়েছেন ৫০০০ টাকা আর্থিক সহযোগিতা।

কালীগঞ্জ উপজেলার সকল মন্ডল সভাপতি সভাপতিগণ জানান সরকারের থেকে পাওয়া আর্থিক সহযোগিতা এবং এলাকাবাসীর আর্থিক সহযোগিতা এবছরের করোনা পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে আমরা পূজা উদযাপন করতে পেরেছি। এই এই করোনা মহামারীর পরিস্থিতিতে একটি সুন্দর পূজার পরিবেশ উপহার দেওয়ার জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানান এবং সেই সাথে জনাব মেহের আফরোজ চুমকি কে শারদীয় দুর্গাপূজা শুভেচ্ছা জানান।