বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে গাজীপুর মহানগর যুবলীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: ৮:৪৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১০, ২০২১

মনির হোসেন জীবন

১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে গাজীপুর মহানগর যুবলীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গাজীপুর মহানগর যুবলীগের আহবায়ক আলহাজ্ব কামরুল আহসান সরকার রাসেলের সভাপতিত্বে গাজীপুর মহানগরের ১৫ নং ওয়ার্ডের বাসন সড়ক ঈদগা মাঠের এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় গাজীপুর যুবলীগের আহবায়ক আলহাজ্ব কামরুল আহসান সরকার রাসেল সহ- উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক সদস্য ইকবাল হোসেন মাস্টার, গাজীপুর মহানগর যুবলীগের অন্যতম নেতা আতিকুর রহমান রাহাত খান, গাজীপুর মহানগর কৃষক লীগের দপ্তর সম্পাদক জহিরুল হক জহির, বাসন থানা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন সরকার, বাসন সড়ক দুর্বার সংঘের সাধারণ সম্পাদক শরীফ হোসেন,আওয়ামী লীগ নেতা শামসুল হক সরকার, জানে আলম, বাসন থানা যুব মহিলা লীগের সভাপতি শিরীন আক্তার, টঙ্গী পূর্ব থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী লিটন উদ্দিন সরকার, ওয়ার্ড যুবলীগের আহবায়ক মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, যুগ্ন আহবায়ক সোহরাব হোসেন,লীগ নেতা রবি, মোহাম্মদ আলী,আব্দুস সামাদ,মশিউর রহমান সহ -অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। ১৯৭২ সালের এই দিনে বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি পাকিস্তানের কারাগারের নির্জন প্রকোষ্ঠ থেকে মুক্তি লাভ করে তাঁর স্বপ্নের স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশে ফিরে আসেন।

বাঙালি জাতি বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে দখলদার পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী লড়াইয়ের মাধ্যমে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিজয় অর্জন করে। মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের কারাগারে থেকে মুক্ত স্বাধীন বাংলাদেশে ফিরে আসার মাধ্যমে সে বিজয় পূর্ণতা লাভ করে। এইদিন স্বাধীন বাংলার নতুন সূর্যালোকে সূর্যের মতো চির ভাস্বর-উজ্জ্বল মহান নেতা ইতিহাসের মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফিরে আসেন তার প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশে। স্বদেশের মাটি ছুঁয়ে বাংলাদেশের ইতিহাসের নির্মাতা শিশুর মতো আবেগে আকুল হলেন। আনন্দ-বেদনার অশ্রুধারা নামলো তার দু’চোখ বেয়ে। প্রিয় নেতাকে ফিরে পেয়ে সেদিন সাড়ে সাত কোটি বাঙালি আনন্দাশ্রুতে সিক্ত হয়ে জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু ধ্বনিতে প্রকম্পিত করে তোলে বাংলার আকাশ বাতাস।

জনগণনন্দিত শেখ মুজিব সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দাঁড়িয়ে তার ঐতিহাসিক ধ্রুপদি বক্তৃতায় বলেন, ‘যে মাটিকে আমি এত ভালবাসি, যে মানুষকে আমি এত ভালবাসি, যে জাতিকে আমি এত ভালবাসি, আমি জানতাম না সে বাংলায় আমি যেতে পারবো কিনা। আজ আমি বাংলায় ফিরে এসেছি বাংলার ভাইয়েদের কাছে, মায়েদের কাছে, বোনদের কাছে। বাংলা আমার স্বাধীন, বাংলাদেশ আজ স্বাধীন।’

আলোচনা সভা শেষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের সকল নিহত দের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাতের
মাধ্যমে সমাপ্ত করা হয়, এবং উপস্থিত সকলের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।