করোনার সময় আমি একা জনগণের সাথে ছিলাম; আবদুল কাদের মির্জা

প্রকাশিত: ৭:৩৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৯, ২০২১

বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, আমি মহামারি করোণাকালিন সময় আমার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার অসহায়দের সাথে পাহাড়ের মত ছিলাম।

কোন দল দেখি নাই, সবাইকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছি। তিনি বলেন,আমি ৪৭ বছর রাজনীতির সাথে জড়িত, সোনার চামুচ মুখে দিয়ে জন্ম গ্রহণ করি নাই।আমি একজন সাধারন গরীব স্কুল মাষ্টারের সন্তান। আমি ছেঁড়া জামা গায়ে দিয়ে স্কুলে পড়ালেখা করেছি।আমার পিতা আমাকে জামা কিনে দিতে পারেন নাই।

গরীবীর সাথে লড়াই করে আমি শৈশবের দিনগুলো পার করেছি।রাজনীতি করার কারণে বাড়ী থেকে রাগ করে কলেজের হোষ্টেলে থেকে অনেকদিন উপবাস থেকেছি। ঈদের দিন না খেয়ে হোষ্টেলে ছিলাম।তিনি আজ শনিবার সন্ধায় কোম্পানীগঞ্জ বাসটার্মিনালে নির্বাচনী পথসভায় এসব কথাগুলো বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শাহাব উদ্দিন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান, সাধারন সম্পাদক নুরনবী চৌধুরী, বসুরহাট পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি জামাল উদ্দিন, সাধারন সম্পাদক আজম পাশা চৌধুরী রুমেলসহ অসংখ্য নেতা-কর্মী। মির্জা আরও বলেন,আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দুই জেলার ১১ জন দুর্নীতিবাজ নেতার নাম পাঠিয়েছি।নোয়াখালীর ডিসি ও এসপির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন আমার কোম্পানীগঞ্জে ভোটের সময় কোন কিছু হলে এটার দ্বায়-দ্বায়িত্ত্ব আপনারা নিবেন।জনতার কাতারে আপনাদের বিচার হবে।