মিষ্টি প্রেম-মারুফ হাসান

Tista Tista

Express

প্রকাশিত: ১২:১৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০২০
একদিন আমি রাস্তায় সাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলাম।
খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আমি অনেক চিন্তা করছিলাম।
হঠাৎ এক মেয়ে আমার সাইকেলে ধাক্কা খায়,
আমি: sorry sorry আপু কোথাও ব্যাথা পেয়েছেন।
মেয়ে: দেখে সাইকেল চালাতে পারেন না।
আমি: সাইকেল দেখেই চালাচ্ছি but আপনাকে দেখিনি।
মেয়ে: আমকে দেখেন নি মানে,, আমি কি পিপরা যে
          আমাকে দেখেন নি।
আমি: না না  আমি সে কথা বলিনি,
মেয়ে: তো
আমি: আপনি মাছি  না পিপরা সেটা আমি দুর থেকে
          বুঝতে পারিনি।
মেয়ে: মানে,,,,,,, দারান আপনি আমাকে চিনেন না।
আমি: ok no problem  এখন থেকে চিনে নিবো,, কি
          নাম  আপনারা?
মেয়ে: আপনার সাহস তো কম না আবার নাম জানতে
          চাচ্ছেন।
আমি: আরে না আপনি না বল্লেন আমি আপনাকে চিনি
           না। তাই চিনতে চাইলাম।
মেয়ে: দারান আমি চিনাচ্ছি আপনাকে? বাসায় গিয়ে
          ভাইয়াকে বলবো আপনাকে যেনো একটু উত্তম
          মাধ্যম দেয়।(চলে যাচ্ছে)
আমি: এই যে শুনুন আমি কিন্তু আপনার ভাইয়ের
           আসায় থাকবো।
অন্য দিন আমি আমার এক বন্ধুর সাথে দেখা করতে গেছিলাম। আর ফোন দিচ্ছিলাম বন্ধুকে।
আমি: কিরে কই তোই,,, তোর বাসার সামনে আমি।
বন্ধু : একটু দারা 1 মিনিট।
আমি রাস্তায় দারিয়ে প্রকৃতি দেখছিমা। পিছন থেকে কে ডেকে বলছে।
মেয়ে: এই যে মিস্টার
আমি: কে  অহ আপনি
মেয়ে: হে আমি আপনার সাহসের প্রশংসা করতে হয়
আমি: সেটা সবাই বলে,
মেয়ে: আবারও মুখে মুখে কথা,,, আপনি আমার পিছু
          নিয়েছেন, না,,,,,,,।
আমি: কই না তো
মেয়ে: পিছু না নিলে আপনি আমার বাসার সামনে
          কেনো।
আমি: অহ এটা আমার সালা বাবুর বাসা।
মেয়ে: সালা বাবু মানে,,, আমি যদি আপনার খবর না
          করেছি। তাহলে আমার নাম রুপা না।
আমি: অহ,,, আপনার নাম রুপা বুঝি।
মেয়ে: কেনো সন্দেহ আছে?
আমি: না,,,না,,,, নাম রুপা রেখেছে তাতেই এতো
          আহংকার। ভাগ্যিস নাম সোনা  রাখেনি।
মেয়ে: আপনি তো খুব খারাপ,, আমি আজ ভাইয়াকে
          বলেই দিবো।
আমি: অহ এতো দিন বলেন নি।
মেয়ে: না,,, আপনাকে মায়া করেছি।
আমি: তাই নাকি আমার জন্য আপনার মায়া হয়,,
মেয়ে: (চিতকার করে)  অহ god.
মেয়েটি চলে যাচ্ছে, বন্ধু আসেছে।
বন্ধু : কিরে চিনিস না কি রুপাকে।
আমি: না রে,
বন্ধু :না চেনাটাই বালো।
আমি: বলিস কি নাচেনা ভালো মানে।
বন্ধু : আরে দুর বাধ্যদেতো,,, চল
আমার হেটে চলছি।
(আমি বাসায় এসে ভাবছি)
আমি:মেয়েটা খুব মিস্টি,,,,, না,না খুব বদ মেজাজি,,অম না,না একটু
সহজ সরল,,,
আরে দুর কি ভাবছি এসব,,, না না,,,, এখন এসব বাবার সময় না।
রুপা ও তার ভাই,,,,
রুপা: ভাইয়া,, ,
ভাই: কিরে কিছু বলবি?
রুপা: না ভাইয়া  ঠিক আছে,,
ভাই: আরে লজ্জার কি আছে কি লাগবে বল তুই তো
         আমার এক মাত্র বোন,,, বল কি লাগবে,,,
রুপা: না কিছু লাগবে না ভাইয়া,,,
ভাই: ok কিছু লাগলে বালিস, আমি বাসায় না থাকলে
        তোর ভাবির কাছ থেকে চেয়ে নিবি কেমন,
রুপা: আচ্ছা ঠিক আছে।
ভাই: আমার একটা কাজ আছে আমি যাই। তোর ভাবি
        বাসায়  আসলে বলিস আমার ফিরতে রাত হবে।
রুপা: আচ্ছা ভাইয়া।
(রুপা ভাবছে)
রুপা : কি ব্যাপার ভাইয়ার কাছে বলতে কস্ট হলো
          কেনো।
          আমি কি তাহলে,,,,,, আরে না না না,, আমি সে
          রকম মেয়েই না। তবে লোকটা দল বেশ মজার।
রুপা কোথাও যাচ্ছিলো। আমি দুর থেকে তাকে দেখে কাছে এলাম।
আমি: এই যে রুপা,,, সালা বাবু তো এখনো দেখা
          করেনি।
রুপা: এই সালা বাবু মানে,, সালা বাবু মানে হুম্মম্ম।
আমি: আরে তোমার ভাই,,,,
রুপা: এতো  লাফাইয়েন না এখনো প্রেম হয়নি।
আমি: তার মানে তুমিও,,,
রুপা: ওই ওই আমিও কি হম্মম্ম।। এখন থেকে রোজ
          আমার সাথে দেখা করতে হবে ok…
আমি: অকে মহারানী,,,
রুপা: থাক থাক আর বলতে হবে না এটা আমার ফোন নম্বর,৷ দরো,,, আমি এখন যাই।
আমি ফোন নম্বর লেখা চিঠিটা হাতে নিয়ে একটা চুমু খেলাম।
রুপা চলে যাচ্ছে আর বার বার পিছনে আমাকে দেখছে।
আমিও দুই চারটা kiss ইসারার দিতে miss করলাম না।।
সারা পেলে ২য় পর্ব লেখা হবে
যোগাযোগ :০১৬২৭০১৬৪৮৬