ভাবনার চাঁদ-সিফাত হোসেন

Tista Tista

Express

প্রকাশিত: ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৬, ২০২০
আসলে তোমরা যেটাকে চাঁদ মনে কর
আসলে তা আমি মনে করি না
আমি মনে করি বালুর এক ঝাক কণা।
পৃথিবী সৃষ্টির পর সব বালু পড়ে গিয়ে ঐ ঝাকটুকু আছে।
আমার আবার অবাক চিন্তা!!
কি জানি কি ভাবতে বসি।
এই তো সেদিন ঠাকুর দাদা বলছিল কি যা তা
বানরেরা  আমাদের আদি দাদা!!
বলালাম আমি অনেক কথা।
আমি আবার ভাবি,
বালু যদি হয় ওই চাঁদটা আধার তবে কি??
পাতিল তলায় কালো ছাইয়েরা অন্ধকারও হয়।
বলি আমি মনে মনে চাঁদ কেন রাতে ওঠে??
তবে কি আমি ভুল ভাবছি চাঁদটা মেয়ে লজ্জা করে।
আমি বলি কিসের লজ্জা জোৎস্না ওঠে রাতের বেলা।
লজ্জা কি আর ছেলে খেলা?
আমি ভাবি চাঁদকে নিয়ে বাকিরা কেন উঁকি মারে!
দোষ কি তবে চাঁদের একার
সূয্য ওঠে মানুষ জাঁগায় ভিষণ রোদে গা ফাটায়।
চাঁদ বলে তাই এই কথা আমার আলোয় স্নিগ্ধ মাখা।
বাচ্চা কাঁদে মানুষ ডাকায় মা ডাকে আয় মামা আয়।
আবার ভাবি গভির ভাবে,
কালো মেঘটা বড়ই কালো নিভিয়ে দেয় চাঁদের আলো।
এখন আমি ভিষন রেগে ভাবছি কি জেঁগে জেঁগে।
আসল কথা,
বুঝলাম এবার একা একা চাঁদ কি শুধু আমার একার?
তবে বুঝি বারে বারে সূয্য কি আর একা ওঠে
সূয্য ওঠে চাঁদের তরে ভাবছি কি ওদের প্রেমের মাঝে।
দিনের আলোয় সূয্য ওঠে রাতের বেলায় চাঁদটা সাঁজে।
রাতে সাঁজুক আর দিনে সাঁজুক ওরা দুজনই বড় লাজুক।
বলি তবে,
সব আলো আজ নিভিয়ে যাক চাঁদের আলোই মাখি।